আজান শ্রবণ এবং অজু করার সময় গল্প করা বা কথা বলা

81

হাদিসে আছে যে, “আজান দেয়ার সময় যদি কেউ নীরব থেকে আজানের জবাব দেয় এবং আজান শেষে দোয়া করে, তাহলে সে সদ্য ভূমিষ্ঠ সন্তানের মত নিষ্পাপ হয়ে যায়”। একই ভাবে “যে ব্যক্তি অজু করার সময় দোয়া করত: নিরবাবস্থায় মনোযোগ সহকারে অজুর প্রতিটি অঙ্গ যথানিয়মে ধোলাই করে, অজু শেষে তার গুনাহ এমন ভাবে ঝড়ে পরে-যেমন ভাবে শীতকালে গাছের পাতা ঝড়ে পড়ে”। অথচ আমরা দেখতে পাই যে, অজুখানায় যদি পরিচিত দুইজন লোক পাশা-পাশী বসে অজু করে, তাহলে ব্যক্তিগত থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক পর্যন্ত কোন কথাই বাদ পড়েনা। আর আজানের সময়-তো আরও বেহাল অবস্থা। আজানের যে জবাব দিতে হবে, এটা-তো একেবারেই আমাদের মনে থাকেনা। এই ক্ষেত্রে নামাজী-গনই বেশীরভাগ সময়ে খেয়াল রাখেন না, আর বে-নামাজির-তো কথাই নেই। যারা নামাজেরই গুরুত্ব দেয় না, তারা আজানের কি গুরুত্ব দিবে?

আসলে এই ফজিলত থেকে বঞ্চিত করার জন্য একজনই দায়ী, আর সে হল শয়তান; যার প্রকাশ্য শত্রু হওয়া সম্বন্ধে মহান আল্লহ রব্বুল আলামীন পাক কালামের একাধিক যায়গায় বর্ণনা করেছেন। এই অজু বা আজানের সময় কোন না কোন একটি উছিলা হয়ে যায়, যাতে করে সে অজু করনে-ওয়ালা বা আজানের জবাব দেনেওয়ালার জন্য সে কথার উত্তর দেয়া জরুরী হয়ে যায়। মনে রাখবেন, এটাই হল শয়তানের মাধ্যমে মহান আল্লহ রব্বুল আলামীন কর্তৃক আমাদেরকে প্রদত্ত বিশাল সুযোগ থেকে বঞ্চিত করার একটা বিশেষ ব্যবস্থা। তাই এখন থেকেই আমাদের প্রতিজ্ঞা করা উচিৎ যে, আমরা আজান শ্রবণ ও অজু করার সময় কোন প্রকার কথা বলব না। যদি কেউ কোন কথা জিজ্ঞাসা করে, তাহলে তাকে ইশারার মাধ্যমে বুঝিয়ে দিব যে, এখন আজান বা অজু হচ্ছে, অতঃপর আজান বা অজু শেষ হলেই আমি একথা বা প্রশ্নের উত্তর দিব। অতএব ধৈর্য ধারণ করে আজানের জবাব দেয়া উচিৎ এবং অজু করার সময় কথা না বলা উচিৎ।

এখানে আরও একটি বিষয় লক্ষ রাখা উচিৎ যে, বর্তমানে যে পদ্ধতিতে সুর করে আজান দেয়া হয়, তা মোটেও ইসলামের বিধান নয়, বরং নিষিদ্ধ। যারা বিভিন্ন ধরনের সুর করে আজান দেয়, তাদের জন্য অত্যন্ত খারাপ খবর রয়েছ। এমতাবস্থায় যদি সুর করতে যেয়ে অর্থের পরিবর্তন হয়, তাহলে সে ধরনের সুর বা পরিবর্তিত শব্দ হারাম। যদিও উত্তম বিষয়টি মহান আল্লহ রব্বুল আলামীনই ভাল জানেন, তারপরও এ বিষয়ে আরও অধিক জানার জন্য ইন্টারনেট মাধ্যমে নীচের ওয়েব সাইট ভিজিট করুন:

http://www.islam-qa.com/en/ref/2165/speaking%20before%20wudoo

http://www.islam-qa.com/en/ref/10523/ruling%20of%20Adhan 

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *