মহানবী সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নূরের তৈরি মনে করা

হযরত মোহাম্মদ সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নূরের তৈরি না মাটির তৈরি এই বিতর্ক এখনও আমাদের সমাজে বিদ্যমান আছে। সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার হয়ে দাড়ায় তখন, যখন দেখতে পাই যে, মাওলানা-গন রসুল সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে নূরের তৈরি হিসাবে রায় দিচ্ছেন। বর্ণনার আলোকে প্রথমে আমাদের জানা উচিৎ যে, নূর এবং মাটির তৈরির মধ্যে পার্থক্যটা কি; যদিও উভয়ই মহান আল্লহ রব্বুল আলামীন এর আদেশ। বর্ণনানুসারে নূরের তৈরিদের জন্য কোন বেহেশত-দোযখ নেই, নারী-পুরুষ নেই, দুনিয়া-আখিরাতের পরীক্ষার ব্যবস্থা নেই, কোন প্রকার ভুল নেই, সৃষ্টির জন্য জন্ম গ্রহণের মত মাধ্যম নেই, বয়সের কোন ধাপ নেই এবং খাদ্য-বস্ত্র-বাসস্থানের মত কোন মৌলিক প্রয়োজন নেই। অপর পক্ষে মাটির তৈরিদের জন্য উপরোল্লিখিত সবগুলোই বিরাজমান এবং বাধ্যতামূলক। সে হিসাবে যদি আমরা মহানবী সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবনকে দেখি, তাহলে উপরের সবগুলোই তাঁর মধ্যে বিদ্যমান দেখতে পাই। তাছাড়া তিনি নিজেই বলেছেন যে, “আমি তোমাদের মতই মানুষ”। সুতরাং আমাদের এবং তাঁর মধ্যে পার্থক্য হল, আমরা সাধারণ মানুষ; আর তিনি মহান আল্লহ রব্বুল আলামীন কর্তৃক নির্ধারিত রসুল”।

আল্লহ রব্বুল আলামীনের আদেশ “ইক্করা” সম্বন্ধে অধিক গুরুত্ব না থাকার কারণেই কেবল বেশ কিছু মাওলানা আছেন যারা রসুল সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নূরের তৈরি হিসাবে বর্ণনা করে যাচ্ছেন। মোট কথা হল উনারা যথানিয়মে শিক্ষা সনদ অর্জন করেছেন ঠিকই, কিন্তু ব্যক্তিগত সময়ে কিতাব অধ্যয়নের চর্চা থেকে অনেক দূরে আছেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় যে, শিক্ষা সনদ অর্জন করার পর তারা একবার যখন নামের পূর্বে মাওলানা লিখতে পারে, তখন আর নতুন করে কিতাব পড়ার কোন প্রয়োজন আছে বলে মনে করে না। শয়তানের সহযোগিতায় নফসের তাড়নায় পরে তাদের একটা বৃহৎ অংশ এমন পর্যায়ে পৌঁছে যায় যে, জামায়াতে নামাজ তো দুরেই থাকুক, অনেক সময় পাঁচ ওয়াক্ত নামাজও পূর্ণ রূপে আদায় করে না। সেমতাবস্থায় যখন কেউ তাদেরকে কোন প্রশ্ন করে, তখন তারা অনুমানের উপর ভিত্তি করে যে কোন সিদ্ধান্ত দিয়ে দেয়। তারা মনে করে যে, যদি সে মুহূর্তে প্রশ্নের উত্তর না দিতে পারে, তাহলে তাদের মাওলানা নামের জাহির নষ্ট হয়ে যাবে। এমতাবস্থায় সকল মানুষেরই জানা থাকা উচিৎ যে, ধর্মীয় ব্যাপারে কোন প্রশ্নের উত্তর জানা না থাকলে সরাসরি বলা উচিৎ, “এই মুহূর্তে বিষয়টি আমার স্মরণে নেই বা জানা নেই, তবে আমি জেনে আপনাকে জানাব ইনশাআল্লহ”। অতএব যারা বলেন নবী সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নূরের তৈরি, তারা ১০০% মিথ্যা বলেন। নিঃসন্দেহে তিনি মাটির তৈরি ছিলেন। যদিও উত্তম বিষয়টি মহান আল্লহ রব্বুল আলামীনই ভাল জানেন, তারপরও এ বিষয়ে আরও অধিক জানার জন্য ইন্টারনেট মাধ্যমে নীচের ওয়েব সাইট ভিজিট করুন:

http://www.islam-qa.com/en/ref/4509/Muhammad made of Light

You may also like...

12 Responses

  1. I believe you have noted some very interesting details, thankyou for the post. 🙂

  2. It is in reality a great and useful piece of info. Thanks for sharing. 🙂

  3. Like says:

    Like!! I blog frequently and I really thank you for your content. The article has truly peaked my interest.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *