মুশরিক প্রতিবেশীদের দেয়া উপহার বা খাদ্য গ্রহণে মন্তব্য করা

30

সাধারণতঃ মুশরিক যদি প্রতিবেশী হয়, এবং সে বাড়ি থেকে যদি কোন খাদ্য দ্রব্য পাকানো অবস্থায় আসে, তাহলে সে খাদ্য গ্রহণ করতে ইসলামে কোন আপত্তি নেই। তবে তাদের আনিত কোন মাংস জাতীয় খাবার খাওয়া হারাম। কারণ: মহান আল্লহ রব্বুল আলামীন বলেছেন যে, “একমাত্র আল্লহ ছাড়া অন্য যে কোন দেবতার নামে জবেহ করা পশু-পাখি খাওয়া সকল মুসলমানের জন্য হারাম”। মুসলমানদের মধ্যে যারা অপ্রয়োজনীয় বাছ-বিচার করে চলেন, তাদেরকে বলতে চাই যে, নবী সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কিন্তু ইহুদী মহিলার পাকানো মাংস খেয়েই বিষ ক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, যা ছিল তাঁর মৃত্যুর জন্য একটা উছিলা। তাঁর চেয়ে বেশী পরিশুদ্ধ সৃষ্টি কি আল্লহর দুনিয়ার কখনো ছিল বা হবে?  মোটকথা প্রতিবেশী মুশরিক-গন যদি কোন উপহার দেয়, তাহলে নিঃসন্দেহে তা গ্রহণ করা বৈধ। তবে তাদের যে কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করা অবৈধ।

অনেক আলেম আছেন, যারা মুশরিকদের তৈরি যে কোন খাদ্য মুসলমানদের জন্য খাওয়া নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন। তথ্যানুসারে কিতাবি-গন ছাড়া অন্য কোন ধর্মের যবেহ কৃত পশুর মাংস খাওয়া যাবে না। কারণ: কিতাবি গন পশু যবেহ করার সময় আল্লহ রব্বুল আলামীনের নাম ব্যবহার করে। কিন্তু অন্য ধর্মের লোকেরা তাদের দেবতাদের নামে পশু যবেহ করে। বর্তমান সমাজের প্রায় সকল প্রকারের মিষ্টান্ন জাতীয় খাবারের নির্মাতা হিন্দু-গনই। যেখানে মুসলমান হোটেল আছে, সেখানেও বেশির ভাগ মিষ্টান্ন কারিগরই হিন্দু। তাহলে কি সকলেই মিষ্টান্ন জাতীয় দ্রব্য খাওয়া বন্ধ করে দিবে?

পরিশুদ্ধতার দিক থেকে এমন কোন ধর্ম নেই, যারা খাবার সামগ্রী তৈরির সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন পানি বা সামগ্রী ব্যবহার করে না। তাই তাদের সকল প্রকার খাদ্য সামগ্রী গ্রহণে নাক সিটকানো উচিৎ না। ধর্মীয় তথ্যানুসারে কাফের বা মুশরিকের চেয়ে যেমন মুনাফিক এবং মুরতাদ খারাপ, ঠিক তেমনি বিধর্মী শ্রমিক গনের তুলনায় বে-নামাজী মুসলমান অনেক গুনে বেশি খারাপ। তাই বে-নামাজী মুসলমানের হাতের পাকানো সকল সামগ্রী খাওয়া বৈধ থাকলে অমুসলিমদের পাকানো খানা খাওয়াতে দোষের কোন কারণ নেই। যদিও উত্তম বিষয়টি মহান আল্লহ রব্বুল আলামীনই ভাল জানেন, তারপরও এ বিষয়ে আরও অধিক জানার জন্য ইন্টারনেট মাধ্যমে নীচের ওয়েব সাইট ভিজিট করুন:

http://islamqa.com/en/ref/82860 

http://www.islam-qa.com/en/ref/85108 

http://www.islam-qa.com/en/ref/126486/relative 

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *