অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্যে বাড়ি সাজানো

বিভিন্ন অনুষ্ঠান উপলক্ষে বাড়ি সাজানো বর্তমানে একটা ফ্যাশন হিসাবে দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে বিয়ের সময়ে বাড়ি এবং বাসর ঘর এমন ভাবে সাজানো হয় যে, যাতে মানুষ বাড়ি সাজানোর কথাটি স্মৃতি বা উপমা স্বরূপ মনে রাখতে পারে, তার জন্য পূর্ণ ব্যবস্থা করা। ইসলামে একমাত্র দুই ঈদের দিন ছাড়া অন্য কোন উদ্দেশে বাড়ি-ঘর বা অন্য যে কোন যায়গা সাজানো সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মোট কথা বিয়ে বা যে কোন অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্যে বাড়ি-ঘর সাজানো হল মুশরিকদের প্রথা। সাজ-গোছ করে নিজেকে, পরিবার-পরিজনকে এবং পারিবারিক অবস্থাকে উপস্থাপন করা হচ্ছে তাদের ধর্মের জন্য একটা ধর্মীয় ইবাদত। মুসলমানদের জন্য যা নিষিদ্ধ, মুশরিকদের ধর্মের জন্য তা ধর্মীয় ইবাদত। এইজন্য মহানবী সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সব সময় মুশরিকদের বিপরীত করার জন্য মুমিনদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু আমরা যখন আমাদের পার্শ্ববর্তী মুশরিকদের যে কোন অনুষ্ঠান দেখি, তখন আর আমাদের ধর্মের মূল বিষয়গুলোকে মনে থাকেনা বা মান্য করার কোন প্রয়োজন বোধ করি না। মনে রাখবেন, যাদের সাথে আপনার দৈনন্দিন কার্যক্রমের মিল থাকবে, হাদিসের তথ্যানুসারে তাদের সাথেই হাশরের মাঠে আপনার অবস্থান হবে। অতএব নিজের জ্ঞান থেকে চিন্তা করে দেখুন যে, আপনি মুশরিকদের বা মুসলমানদের মধ্যে থেকে কোন বিধানকে অনুসরণ করবেন। যদিও উত্তম বিষয়টি মহান আল্লহ রব্বুল আলামীনই ভাল জানেন, তারপরও এ বিষয়ে আরও অধিক জানার জন্য ইন্টারনেট মাধ্যমে নীচের ওয়েব সাইট ভিজিট করুন:

http://www.islamqa.com/en/ref/145950/gift

 

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *