হিন্দু দেবতাদের পদ্ধতির অনুসরণ করা

আমরা যদিও মুসলমান, তথাপি আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ একটি হিন্দু প্রধান দেশ হওয়াতে, সে সাথে আমাদের দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম হিন্দু হওয়াতে আমরা খুব বেশী ভাবে হিন্দু সংস্কৃতির সাথে জড়িত। আমাদের কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যদিও হিন্দুরা আসে না, কিন্তু আমাদের নামধারী মুসলমান-গন হিন্দুদের পূজার অনুষ্ঠান ছাড়া কিছুই বুঝে না, বরং তারা অনুষ্ঠানে না গেলে হিন্দুদের পূজা মণ্ডপ একটি ক্রেতা বিহীন হাটে পরিণত হবে। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, আজও আমাদের হটাৎ কিছু একটা হলে হিন্দু দেবী দুর্গার মত মাথায় হাত দিয়ে জিহ্বায় কামড় কাঁটি, কোন মেয়ে কল্যাণ কর কিছু করলে বলি, ”আসলে মেয়েটা বড় লক্ষীগো! কথায় কথায় বলি, ”সারা রাত রামায়ণ পড়ে সকালে বলে সীতা কার বাপ” ইত্যাদি। আমরা মাথায় হাত এবং জিহ্বায় কামড় না কেটে কি বলতে পারিনা যে, “ইন্না-লিল্লাহ অথবা নাউজুবিল্লাহ”?  আমরা কি লক্ষ্মীর কথা না বলে বলতে পারিনা যে, “মেয়েটি বড় বরকত ময়ী?  রামায়ণের কথা না বলে আমরা কি বলতে পারিনা যে, সারা রাত কুর’আন শুনে সকালে বলে রসুল কি জীন না ফেরেশতা”?  অবশ্যই পারি, কিন্তু সব থেকে বড় সমস্যা হল আমাদের পূর্ব পুরুষদের দেবতাদেরকে ভুলতে আমাদের একটু কষ্ট হচ্ছে, এই আর কি। জেনে রাখুন আমরা এখনো প্রকৃত মুমিনই হতে পারিনি, কাজেই মুসলমান-তো আরও অনেক পরের কথা। তাই ইমান বাচাতে হলে প্রথমে আমাদেরকে মুশরিক প্রীতি অবশ্যই ভুলতে হবে এবং তার পর প্রকৃত ইসলাম সম্বন্ধে জেনে আমল করতে হবে। হিন্দু-গন যে সকল বিষয় পালন করে থাকে, সে বিষয়গুলো প্রথমে আমাদেরকে বাদ দিতে হবে। সে সাথে কুর’আন- হাদিসে নেই এই ধরনের সকল কু-প্রথা বা কু-সংস্কার থেকে এড়িয়ে চলতে হবে।

http://www.islam-qa.com/en/ref/170355/following%20to%20hindu  

 

You may also like...

3 Responses

  1. I believe you have noted some very interesting details, thankyou for the post. 🙂

  2. Likely I am likely to save your blog post. 🙂

  3. Like says:

    Like!! Great article post.Really thank you! Really Cool.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *